"ভূত" বিভাগে করেছেন

এটি মূলত কি..?

ইসলামে তো ভুতের ব্যাখ্যা নেই

1 উত্তর

+1 টি ভোট
করেছেন
ভূত বলে কিছু আছে কিনা তা বিতর্কিত বিষয়। ভূত শব্দটি প্রকৃতি যা কারও পক্ষে সম্ভব নয় এমনকি ব্যাখ্যা করাও সম্ভব নয় সেক্ষেত্রে আঞ্চলিক ভাবে ব্যবহার করা হয়। 

বিজ্ঞান মতে ভূত বলে কিছু নাই। বিভিন্ন পরিবেশের বিভিন্ন অবস্থার কারনে মানুষের স্নায়ু যখন নিজের কন্ট্রল হারিয়ে ফেলায় তখন মস্তিষ্কের কেন্দ্রীয় স্নায়ু  কিছু অনিয়ন্ত্রিত সংকেতকের ভূল বিশ্লেষন গ্রহন করে। ফলে মানুষ এমন কিছু অনুভব বা দেখতে পায় যা সে কখনো বুঝতে পারেনা ও ব্যাখ্যা করতে পারেনা। তখন ভয়ংকার বিষয়ে সে সন্দিহান হয়ে পড়ে এবং ভয় পায়। এই ব্যাখ্যাহীন বিষয়কে নিজ মনের সাথে ও অন্যকে বোঝাতে ভূত বলে আখ্যায়িত করে থাকে। 

আবার পরিবেশের কিছু আলো আধারের খেলা মানুষের জ্ঞানের বাইরে চলে যেতে পারে তখন মানুষের সামনে ছায়াগত কোন অবয়ব সৃষ্টি হলেও মানুষ ভয় পায় ও ভুত বলে নিজের সান্তনা খোজেন। 

অন্য দিকে ধর্মীয় দিক থেকে ভূত বলে কিছু নাই কেননা ধর্ম আঞ্চলিক ভূত শব্দটি গ্রহন করেনা। তবে ধর্মীয় ভাবে জীন বা অভিশাপ প্রাপ্ত সয়তান আছে বলে বিশ্বাস করা হয়। তাই ধর্মীয় ভাবে আঞ্চলিকতা পরিহার করে ভৌতিক কর্মকে জীনদের উৎপাত বা সয়তানের কাজ বলে ব্যাখ্যা করা হয়। যদিও এক্ষেত্রে বিশ্বাস ব্যতিত কোন প্রমান নাই। 

তবে ভূত বলে কিছু থাক বা নাই থাক মানুষের জীবনের ভূতের প্রভাব লক্ষ্মনীয়। যখন কেউ ভয় পান তখন সেই ভয়ের প্রভাব তার জীবনকে একে বারেই নষ্ট করে দিতে পারে। একারনে আমাদের উচিত এমন কোন জ্ঞানের অনুসন্ধান করা যে জ্ঞানের প্রভাবে ভয় অভিজ্ঞতা অর্জনকারী ব্যক্তি যেন মনে সাহস সঞ্চার করতে পারে যে এগুলো তাহার কোন রুপ ক্ষতিই করতে পারবেনা। তবেই যেমন ভূতের প্রভাব থেকে ব্যক্তি রক্ষা পাবে তেমনি ভূত নেই বলেও বিশ্বাস তার মনে জাগতে পারে। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

3 টি উত্তর
0 টি উত্তর
06 সেপ্টেম্বর "জীব বিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
0 টি উত্তর
10 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 10 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 1185
...