প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন নিবন্ধন বা রেজিষ্ট্রেশন ছাড়াই
0 টি ভোট
"উদ্ভিদ বিজ্ঞান বই" বিভাগে করেছেন (588 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (1.5k পয়েন্ট)

নিম্নে ব্যাপন ও অভিস্রবনের মধ্যে পার্থক্য উল্লেখ করা হলঃ- 


ব্যাপন অভিস্রবন
১। উচ্চ ঘনত্বের দ্রবন থেকে কম ঘনত্বের দ্রবনের দিকে পদার্থের(দ্রব) অনুগুলো ছড়িয়ে পড়াকে ব্যাপন বলে। ১। দুটি ভিন্ন ঘনত্বের দ্রবনকে একটি বৈষম্যভেদ্য পর্দা দ্বারা পৃথক করে রাখলে কম ঘনত্বের দ্রবন থেকে উচ্চ ঘনত্বের দিকে দ্রাবক পরিবাহিত হওয়াকে অভিস্রবন বলে।
২। পদার্থের অনুগুলো পরিব্যাপ্ত হয় বা ছড়িয়ে পড়ে ।  ২। পদার্থের অনু নয়, দ্রাবক পরিবাহিত হয়। 
৩। যে পাত্রে বা স্থানে পদার্থ থাকে তার চারপাশে সমান ঘনত্বে না ছড়ানো পর্যন্ত ব্যাপন চলতে থাকে ।  ৩। দুটি দ্রবনের ঘনত্ব এক না হওয়া পর্যন্ত অভিস্রবন চলতে থাকে। 
৪। পদার্থের ঘনত্বের চাপের ফলে ব্যাপন ঘটে । এই চাপকে ব্যাপন চাপ বলে।  ৪। পদার্থের ঘনত্বের মাত্রা প্রশমিত করতে দ্রাবক যে চাপের ফলে উচ্চ ঘনত্বের দিকে যায় তাকে অভিস্রবনিক চাপ বলে । 
৫। এটি একটি ভৌত প্রক্রিয়া। ৫।এটিও ভৌত প্রক্রিয়া হলেও রাসায়নিক প্রভাব বিদ্যমান।
৬। ভেদ্য বা বৈষম্যভেদ্য বা অর্ধভেদ্য পর্দা থাকেনা।  ৬। দুটি ভিন্ন ঘনত্বের দ্রবনের মাঝে অবশ্যই একটি ভেদ্য বা বৈষন্যভেদ্য বা অর্ধভেদ্য  পর্দা থাকে যা দ্রবনদ্বয়কে পৃথক রাখে। 
৭। যেমনঃ বাতাসে সেন্ট এর সুগন্ধ ছড়িয়ে পড়া।  ৭। যেমনঃ পানিতে কিসমিস রাখলে তা পানি শোষন করে ফুলে ওঠা। 


সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
0 টি উত্তর
13 ফেব্রুয়ারি "বায়োলজি বই" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রিপন (1.5k পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
13 সেপ্টেম্বর 2020 "জীব বিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Taif (11 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
16 ফেব্রুয়ারি "জীববিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রিপন (1.5k পয়েন্ট)

11 Online Users
1 Member 10 Guest
Online Members
Today Visits : 6283
Yesterday Visits : 6520
Total Visits : 3716985

বয়স গণনা করুন





     বয়স : 0 বছর     
            0 মাস
            1 দিন
...