+1 টি ভোট
"তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বই" বিভাগে করেছেন (229 পয়েন্ট)
বন্ধ করেছেন
একটু বৃহৎ আকারে দিলে ভালো হয়     
বন্ধ

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (603 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
ম্যালওয়ারঃ যেসকল প্রোগ্রামিং কোড বা সফটওয়ার কম্পিউটারের সাধারন পরিবেশকে বিনষ্ট করে ইউজারকে বিভিন্নভাবে বাধার সৃষ্টি করতে পারে, এমনকি কম্পিউটার হার্ডওয়ারের মধ্যে ম্যালফাংশন সৃষ্টি করতে পারে তাদেরকে ম্যালওয়ার বলে।

সাধারণ ম্যালওয়ার হচ্ছে ক্ষতিকর প্রোগ্রাম যা ইউজারের অন্য প্রোগ্রামে কাজ করতে বাধার সৃষ্টি করে। তাই কম্পিউটার সবসময় ম্যালওয়ার মুক্ত রাখা জরুরী। 

নিম্নে ম্যালওয়ার মুক্ত রাখার কিছু উপায় বর্ণনা করা হলঃ- 

(ক) সিস্টেম আপডেটঃ অপারেটিং সিস্টেম কোম্পানি গুলো সবসময় বিভিন্ন ক্ষতিকর প্রোগ্রামকে রক্ষা করতে তাদের সিস্টেমের নানা অংশের জন্য নতুন সিকিওর প্রোগ্রাম করে আপডেট ছাড়েন। তাই সাথে সাথে সিস্টেমকে আপডেট করে নিতে হবে। নতুন প্রোগ্রামের বৈশিষ্ট ম্যালওয়ারের জন্য উপযুক্ত না হওয়ায় ম্যালওয়ার নিষ্ক্রিয় হয় বা আক্রমন করতে পারেনা।

(খ) বিশস্থ কোম্পানির উৎকৃষ্ট ও পেইড সফটওয়ার ব্যবহার করাঃ সফটওয়ার তৈরিকারক কোম্পানিগুলোর পেশাই হচ্ছে সফটওয়ার তৈরি। তারা আপনার জন্য সর্বোচ্চ মেধা দিয়েই সর্বোতকৃষ্ট সফটওয়ার তৈরি করে আপনাকে বিক্রি করে। মন্দ বা ভুলে ভরা সফওয়ার কেউ কিনবেনা নিশ্চয়। তাই কম্পিউটার ম্যালওয়ার থেকে রক্ষা পেতে পেইড সফটওয়ার ব্যবহার করতে হবে। এতে ডেভেলেপারগণ নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিশ্চিত করবে। ফ্রি সফটওয়ার গুলো সাধারণ ভুলে ভরা ও ভেতরে ক্ষতিকর প্রোগ্রাম যুক্ত থাকে। কারন আপনি ডেভেলপারগণকে টাকা দিচ্ছেননা বলে তারা আউট ইনকামের জন্য এভাবেই প্রোগ্রাম লেখেন। এছাড়া বিশস্ত কোম্পানি ক্ষতিকর কিছু বিক্রি করবেনা নিশ্চয়।

(গ)  ভাল এন্টিভাইরাস ব্যবহারঃ কম্পিউটারে ভাল মানের এন্টিভাইরাস ব্যবহার করলে তা সার্বক্ষনিক কম্পিউটারকে মনিটর করে। যখনই ম্যালওয়ার এসে পড়ে তখনি এন্টিভাইরাস তা নিষ্ক্রিয় করে দেয়। এছাড়া মাঝে মাঝে এন্টিভাইরাস দ্বারা পুরা কম্পিউটার স্কান করতে হবে। 

(ঘ) ফায়ারওয়ালঃ সিস্টেম ফায়ারওয়াল অন রাখতে হবে। ফায়ারওয়াল সাধারন ইউজারের নির্দেষকে অথনটিকেট বা ভেরিফাই করেই ওয়েবে পাঠায় ও কোন তথ্যকে নির্দেষ অনুসারে যাচাই করেই কম্পিউটারে প্রবেশের অনুমতি দেয়। কাজেই ক্ষতিকর ম্যালওয়ার বিনা অনুমতিতে কম্পিউটারে প্রবেশ করতে পারেনা। কেননা ম্যালওয়ার নিশ্চয় ইউজার ইচ্ছা করেই প্রবেশ করাবেনা। ম্যালওয়ারের কাজই হচ্ছে বিনা অনুমতিতে প্রবেশ যা ফায়ারওয়াল রোধ করে। 

(ঙ) যত্র তত্র পেনড্রাইভ ফ্লাশ ড্রাইভ বা মেমরি প্রবেশ না করানোঃ এগুলো প্রয়োজন অনুযায়ী এবং বিশস্থ মানুষের কাছ থেকে পাওয়া ব্যবহার করতে হবে। এর পরও তা সরাসরি ওফেন না করে, এন্টিভাইরাস দ্বারা স্কান করেই ব্যবহার করতে হবে যাতে ম্যালওয়ার আটকা পড়ে। 

(চ) অবিশ্বাস্ত ও ফ্রি ভিপিএন ব্যবহার না করাঃ বহু ফ্রি ভিপিএন কোম্পানি তথ্য পাচার ও ব্যবসা করতে ফ্রি ভিপিএন সেবার মাধ্যমে ম্যালওয়ার প্রবেশ করিয়ে দেয়। 

(ছ) চোরাই, কপি, ক্রাক ইত্যাদি সফটওয়ার ব্যবহার না করাঃ এগুলো ম্যালওয়ারে ভরা থাকে যা কম্পিউটারে ছড়িয়ে পড়ে তাই এগুলোর ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। 

উপরোক্ত ব্যবস্থা গ্রহনের মাধ্যমে কম্পিউটারকে ম্যালওয়ারমুক্ত রাখা যেতে পারে। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
25 অক্টোবর 2020 "স্নায়ু ও মানসিক" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন আবির (177 পয়েন্ট)
+1 টি ভোট
1 উত্তর
6 Online Users
0 Member 6 Guest
Today Visits : 8334
Yesterday Visits : 8149
...