0 টি ভোট
"বায়োলজি বই" বিভাগে করেছেন (3.1k পয়েন্ট)
ক্লোরোপ্লাস্ট কি ? ক্লোরোপ্লাস্টের গঠন লেখ

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (3.1k পয়েন্ট)

ক্লোরোপ্লাস্টঃ উদ্ভিদে সবুজ বর্ণ ধারনকারী প্লাস্টিডকে ক্লোরোপ্লাস্ট বলে। ক্লোরোপ্লাস্ট দ্বারাই উদ্ভিদ সালোকসংশ্লেষণ করে থাকে। এই ক্লোরোপ্লাস্টের গঠন বেশ জটিল। নিন্মে ক্লোরোপ্লাস্টের গঠন আলোচনা করা হলঃ-


আবরণীঃ প্রতিটি ক্লোরোপ্লাস্ট দ্বিস্তরবিশিষ্ট একটি বৈষম্যভেদ্য পর্দা বা ঝিল্লী দ্বারা আবৃত। পর্দাটি লিপিড ও প্রোটিনযুক্ত লিপো-প্রোটিন দিয়ে গঠিত। গঠনগত দিক দিয়ে এই পর্দাটি প্লাজমামেমব্রেনের অনুরুপ। ঝিল্লীটি ক্লোরোপ্লাস্টের ভেতরের উপাদানগুলোকে রক্ষা করে এবং বিভিন্ন পদার্থের ভেতরে ও বাইরে যাওয়া নিয়ন্ত্রন করে। 

স্ট্রোমাঃ ঝিল্লিবেষ্টিত ক্লোরোপ্লাস্টের ভেতরে অবস্থিত স্বচ্ছ, দানাদার, অসবুজ জলীয় পদার্থের নাম স্ট্রোমা। লিপো-প্রোটিন ও কয়েক প্রকার এনজাইম নিয়ে স্ট্রোমা গঠিত। স্ট্রোমা গ্রানার ধাত্র বা ম্যাট্রিক্স হিসাবে কাজ করে। স্ট্রোমাতে ৭০S রাইবোজোম, অসমোফিলিক দানা ও অন্যন্য পদার্থ থাকে। এতে গ্লুকোজ তৈরির এনজাইমও থাকে।  সালোকসংশ্লেষনে কার্বন বিজারনের মাধ্যমে গ্লুকোজ উৎপাদনের প্রক্রিয়া C3 ও C4 উদ্ভিদে স্ট্রোমাতেই ঘটে। 

থাইলাকয়েড ও গ্রানাঃ ক্লোরোপ্লাস্টের স্ট্রোমার ভেতরে ক্লোরোফিল বহনকারী একক ঝিল্লিযুক্ত অনেকগুলো চ্যাপ্টা থলির মত অংশ থাকে। এদের থাইলাকয়েড বলে। এরকম ১০-১০০টি থাইলাকয়েড স্তরে স্তরে বিন্যাস্ত হয়ে একটি চক্র বা চাকতি গঠন করে। একে গ্রানা বলে(এক বচনে গ্রানাম)। প্রতিটি ক্লোরোপ্লাস্টে ৪০-৬০টি গ্রানা থাকে। গ্রানা গুলোর আয়তন ০.৩-১৭ মাইক্রোমিটার পর্যন্ত হয়ে থাকে। গ্রানাম চক্রের ভেতরের ঝিল্লির গায়ে কোয়ান্টোসোম নামক স্ফটিকাকার কিছু বস্তু থাকে। এগুলো আলোর ফোটন কণা শোষনকারী সালোকসংশ্লেষী একক রুপে করে। উদ্ভিদে ফটোফসফোরাইলেশোন প্রক্রিয়া এখানে ঘটে। 

স্ট্রোমা ল্যামেলীঃ পাশাপাশি অবস্থিত গ্রানাগুলি কিছু সংখ্যাক গ্রানাম চক্র একে অপরের সাথে একটি সুক্ষ্ম লম্বাকৃতি নালী দ্বারা সংযুক্ত থাকে। এই নালীকাগুলিকে স্ট্রোমা ল্যামেলী বলে। 

ATP-synthases: থাইলাকয়েড ঝিল্লি অসংখ্যা গোলাকার বস্তু বহন করে। এগুলো ATP তৈরির সকল এনজাইম ধারন ও বহন করে। এগুলোকে ATP-synthases বলে। 

ফটোসিন্থেটিক ইউনিটঃ থাইলাকয়েড ঝিল্লীতে ATP-synthases এর মাঝে ফটোসিন্থেটিক ইউনিট উপাদান বা সাইটোক্রোম-বি কমপ্লেক্স ইউনিট থাকে। প্রতিটি ইউনিটে ক্লোরোফিল-এ, ক্লোরোফিল-বি, ক্যারোটিন, জ্যান্থোফিলের প্রায় ৩০০-৪০০ অনু থাকে। এতে ফসফোলিপিড, কুইনোন, সালফোলিপিড ও বিভিন্ন এনজাইম থাকে। 

DNA ও রাইবোজোমঃ ক্লোরোপ্লাস্টের মধ্যে প্রায় সমানাকৃতির ২০০ টির মত DNA অনু থাকে। এগুলো ক্লোরোপ্লাস্টের নিজস্ব DNA যা কোষের কার্যক্রমে অংশ নেয়না। এটি শুধু ক্লোরোপ্লাস্টের বিভাজন বা উৎপাদনে অংশ নেয়। একই ভাবে ক্লোরোপ্লাস্টে ৭০S রাইবোজম পাওয়া যায় যা কোষের কার্যক্রমে অংশ নেয়না। এটি ক্লোরোপ্লাস্টের নিজস্ব প্রোটিন উৎপাদনে অংশ নেয়। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
03 জানুয়ারি "বায়োলজি বই" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Waruf (3.6k পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
11 জানুয়ারি "জীববিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Naeem (542 পয়েন্ট)
4 Online Users
0 Member 4 Guest
Today Visits : 3199
Yesterday Visits : 2293
Total Visits : 5080916
...