0 টি ভোট
"কৃষিশিক্ষা" বিভাগে করেছেন (3.1k পয়েন্ট)
পাস্তুরিকরণ বলতে কি বোঝায়? দুধ পাস্তুরিকরণের প্রয়োজনীয়তা কি

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (3.1k পয়েন্ট)
পাস্তুরিকরণঃ দুধকে অতি উচ্চ তাপমাত্রায় ফুটিয়ে দ্রুত ঠান্ডা করে মুখ বন্ধ করে সংরক্ষন করার পদ্ধতিকে পাস্তুরিকরন বলা হয়। পাস্তুরিকরনের প্রধান নিয়ম বা শর্ত হল উচ্চ তাপমাত্রায় দুধ ফুটিয়ে অতি দ্রুত শীতল করা এবং সাথে  সাথে তা মুখ আটকে ভ্যাকুয়াম করা যাতে বাইরের বাতাস ভেতরে বা ভেতরে জলীয় অংশ বাইরে না যেতে পারে। 

দুধকে পাস্তুরিকরনের উদ্দেশ্যঃ দুধ হচ্ছে আদর্শ খাদ্য। দুধে প্রায় সকল পুষ্টি উপাদান সুষম পরিমানে থাকায় একে সুষম খাদ্য বলে। তাই দুধ সহজে জীবানূ দ্বারা আক্রান্ত হয়। নানা ব্যাকটেরিয়া  বিশেষ করে ল্যাক্টোব্যাসিলাস ব্যাকটেরিয়া দ্রুত দুধে জন্মে ও বংশ বিস্তার করে ফলে দুধ নষ্ট হয়। কিন্তু এই ব্যাক্টেরিয়া উচ্চ তাপনাত্রায় জম্মাতে পারে না, বেচে থাকতেও পারেনা। এই কারনে দুধকে অধিকক্ষন ভাল রাখতে বা সংরক্ষন করতে পাস্তুরিকরন করা হয়। পাস্তুরিকরনের ফলে দুধে উপস্থিত জীবানূ ধওংস হয়। এবং দ্রুত শীতল করে ভ্যাকুয়াম করার ফলে দুধের পুষ্টিগুন অক্ষত থেকে দুধে উপস্তিত এনজাইম এর সক্রিয়তা নষ্ট হয়। এবং বাইরের বাতাস থেকে জীবানু মিশ্রিত হতে পারেনা। ফলে দুধ ভাল থাকে। 

সাধারণত দুধ, ১৪৫ ডিগ্রী ফারেনহাইট তাপমাত্রায় ৩০ মিনিট বা ১৬২ ডিগ্রী তাপমাত্রায় ১৫ সেকেন্ড উত্তপ্ত করে পাস্তুরিকরন করা হয় এবং তা ৪ ডিগ্রীতে শীতল করে সংরক্ষন করা হয়। 

ভাল করে পাস্তুরাইজ করা দুধ ১৫ দিন পর্যন্ত সংরক্ষন করা যায়। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
11 মার্চ "বিজ্ঞান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রিপন (3.1k পয়েন্ট)
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
13 ফেব্রুয়ারি "রসায়ন বই" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রিপন (3.1k পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
9 Online Users
0 Member 9 Guest
Today Visits : 3308
Yesterday Visits : 2293
Total Visits : 5081025
...