"শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধুলা" বিভাগে করেছেন

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন
বয়ঃসন্ধিঃ সন্ধি অর্থ সংযোগ স্থল, যুক্ত স্থান। উভয় দিকের মধ্যভাগ। বয়ঃসন্ধি হচ্ছে জীবনের সময় বা বয়সভেদে দুটি ভিন্ন বয়য়সের মাঝামাঝি সময়।

বয়ঃসন্ধিকালঃ দশ থেকে উনিশ বছর পর্যন্ত সময়কালকে বয়ঃসন্ধিকাল বলে। এই বয়সের ছেলেদের কিশোর ও মেয়েদের কিশোরী বলে। কাজেই বয়ঃসন্ধিকাল বাল্যকাল ও যৌবনকালের মধ্যবর্তী সময়। তাই একে বয়ঃসন্ধি বলা হয়।

কারণঃ একটি শিশু জন্মের পর থেকে বড় হতে থাকে ফলে তার শরীরে নানা পরিবর্তন ঘটে। বয়সের বিভিন্ন পর্যায়ে এই পরিবর্তনকে কাল বলে।

সাধারণ জন্ম থেকে ৫ বছর পর্যন্ত শিশুর শৈশবকাল বলা হয়। শৈশবকালে ছেলে ও মেয়ে সকলকে শিশু বলা হয়।

শিশুকালে শিশুর শরীরে মস্তিষ্কের গঠন হতে থাকে এবং শারীরিক দিক থেকে বড় হওয়া ছাড়া বিশেষ পরিবর্তন ঘটেনা।

৬-১০ বছর পর্যন্ত সময়কে বাল্যকাল বলে। এ সময়ে ছেলেদের বালক ও মেয়েদের বালিকা বলে। এই সময়ে শারীরিক পরিবর্তনের জন্য বিভিন্ন অঙ্গ প্রস্তুত হয়, কোষীয় প্রস্তুতী ও বিভিন্ন গ্লান্ড বা গ্রন্থির বিকাশ হয়।

এর পর ১০-১৯ বছর পর্যন্ত সময় হচ্ছে বয়ঃসন্ধিকাল এবং এই সময় অতি গুরুত্বপূর্ণ। ছেলে ও মেয়েদের শরীরে এই সময়ে নানা পরিবর্তন হয়। মূলত মানুষের জীবনের সেকেন্ডারী পরিবর্তন সবকিছু এই সময়ে ঘটে। এর আগের পরিবর্তনকে মৌলিক পরিবর্তন বলে। মৌলিক পরিবর্তন ছেলে ও মেয়ে, মানুষ বা প্রাণী সবার মধ্যে সমান ঘটে। কিন্তু সেকেন্ডারী পরিবর্তন ছেলে ও মেয়েতে ভিন্নভাবে ঘটে। এই ভিন্নতার কারনে বাহ্যিক এবং বৈশিষ্টগত পরিবর্তন ঘটে থাকে যা মানুষের বিকাশকে সম্পর্ণ করে থাকে তাই একে বয়ঃসন্ধি বলা হয়। এই বয়সের পর শারীরিক বৃদ্ধি কোষকলার দৃঢ় গঠন ছাড়া বিশেষ কোন পরিবর্তন হয়না। বৃদ্ধির ক্ষেত্রে আবার ২৪ বছর পর লম্বায় বৃদ্ধি রহিত হয়ে যায়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

7 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 7 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 6505
...