0 টি ভোট
"English" বিভাগে করেছেন (542 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (3.1k পয়েন্ট)
স্পোকেন ইংলিশের প্রয়োজনীয়তাঃ আমরা বাঙ্গালী, আমরাই একমাত্র জাতি যারা ভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছে। তাই আমাদের অবশ্যই উচিত মাত্রভাষা ব্যবহার করা।

কিন্তু উন্নত বিশ্বের দিকে এবং তাদের উন্নতি জ্ঞান বিজ্ঞানের ইতিহাস দেখলে দেখা যাবে অল্প কিছু দেশ সূদুর অতীত থেকে জ্ঞান বিজ্ঞানে অগ্রগতি লাভ করে তারা আজ উন্নত জাতি হয়েছে। আর তাদের ভাষা ইংলিশ বা ইংলিশের খুব কাছাকাছি হওয়ায় তাদের জ্ঞান বিজ্ঞানের বইগুলো ইংলিশে লেখা।

অন্যদিকে ব্রিটেন এমন একটি দেশ যারা কোন না কোন সময়ে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ শাসন করেছে। মাত্র হাতে গোনা দুই তিনটা দেশ যারা ব্রিটিশ সম্রাজ্যের অধিন ছিল না। এই বিশাল এরিয়া শাসন করতে ব্রিটিশরা নিজ দেশের মানুষদেরই বেশি নিয়োগ দিতেন। তাদের ভাষা ইংরেজী। তারা শাসন শোষন ইত্যাদি করতে, অন্যের সম্পদ লুট বা কুক্ষিগত করতে স্থানীয়দের সাথে নিতেন। আর তাদের যোগাযোগ সমস্যা দূর করতে পদস্থদের ইংরেজী শেখাতেন। এভাবে শাসন বা অপশাসন যাই হোক সকল দেশেই ইংরেজী ভাষা ছড়ায়। পরবর্তীতে বিশ্ব যখন গ্লোবালাইজেশনের দিকে এগুতে থাকল তখন জাতিসংঘ ইংলিশকে আন্তর্জাতিক ভাষায় স্বীকৃত দিল। এভাবে বর্তমানে বিশ্বে ইংলিশ ভাষা ছড়িয়ে পড়েছে, দক্ষ হোক বা না হোক বর্তমানে স্কুলে পড়েছে এমন সকলেই ইংলিশ জানেন। 

আর এই অবস্থায় অনুন্নত দেশ গুলোতে ইংরেজীর গুরুত্ব অত্যাদিক বেড়েছে কারন তারা উন্নত দেশের ইংলিশ বই বা ভাষাতে তাদের উন্নত জ্ঞান ও জীবন ধারা শীখতে চেয়েছে।  আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সকল যোগাযোগ, লেনদেন, ব্যবসা বানিজ্য এমনকি ভাল চাকরীর জন্য বিদেশ গমন ইত্যাদি কাজে ইংলিশ প্রয়োজন। 

যেকোন ভাষা শিখতে হলে তার গ্রামার নিয়ম কানুন বুঝতে হয়। তা সত্বেও বেশির ভাগ ক্ষেত্রে এমনকি যারা দক্ষ তারাও যোগাযোগ বা বলার ক্ষেত্রে যতটা সম্ভব সহজ করে ভাষার প্রয়োগ করে থাকেন। এতে গ্রামার কিছুটা ভূল থাকলেও সেদকে নজর না দিয়া বরং সঠিক অর্থ বুঝতে পারার দিকে নজর দেন। এই ধরনের ভাষাকে স্পোকেন ভাষা বলে। কাজেই

জীবনে যত ক্ষেত্র আছেনা কেন সবখানেই স্পোকেন ইংলিশ সর্বাজ্ঞে।

স্কুল কলেজের পরীক্ষা ব্যতিত লিখিত ও পূর্ন গ্রামারের প্রয়োগ খুবই কম। এমনকি অনেক জটিল বাক্যের বক্তব্যেও গ্রামার প্রয়োগ কঠিন বলে ফেরেজ প্রয়োগ করা হয়। তাই কর্ম ক্ষেত্র যোগাযোগ ক্ষেত্র সব খানের জন্য স্পোকেন ইংলিশ গুরুত্বের হওয়ায় এটি ছাড়া আপনি চলতেই পারবেন না। শুধু লিখিত সিস্টেমের কিছু ক্ষেত্রে স্পোকেন হয়ত কম প্রয়োগ হয়। কিন্তু এটাও সত্য যে স্পোকেনে দক্ষ ব্যক্তি ধীরে ধীরে গ্রামার বা লিখিত রুপে দক্ষ হয়ে যায়। কিন্তু গ্রামার বা লিখিত দক্ষ ব্যক্তি সহজে স্পোকেনে দক্ষ হতে পারেনা। নিজেকে প্রশ্ন করুন, আমাদের দেশের বিশাল ছাত্র সমাজ সবাই ইংলিশ জানেন, ট্রান্সলেশন দিলে গ্রামার খাটিয়ে করে দিতে পারবেন। বই পড়ে ১০০% না হোক ৭০-৮০% বুঝতে পারেন, অর্থ পারেন, বাকীটুকু শব্দার্থ না জানার জন্য হয়ত বুঝতে অসুবিধা। কিন্তু এই সবাইকে কথা বলতে দিলে বিপদ। কেউই বলতে পারবেনা, অনেকেই চেষ্টা করলেও ধীর গতি ও ভুলে ভরা হয়ে যাবে। কেননা আমাদের স্পোকেনে দক্ষতা নাই, অভ্যাসও নাই, স্কুল কলেজে ক্লাসেই শেষ, ক্লাসের বাইরে এসে কয়জন ইংলিশে কথা বলে প্রাক্টিস করেন? একজনও নয়। তাই আমাদের দশা আমরা ইংলিশ জানিনা।

কাজেই চাকরী জীবনে অফিসে কাজ করতে, প্রেজেন্টেশন এ বক্তব্য দিতে, ক্লায়েন্টের সাথে ডিল করতে সমস্ত কথা বলা বা যোগাযোগের জন্য স্পোকেনই দরকার। আমাদের ভাষা বাংলা হলেও ইংরেজীর জয়ে আজ আমরা বাংলা বলতে গেলেও ইংলিশ শব্দ জড়াই।

কাজেই চাকরী জীবনে সফল হতে হলে তাই স্পোকেন ইংলিশের জুড়ি নেই, এটি ছাড়া অসম্ভব। রিটেনে গ্রামার কিছুটা ভুল হলেও অসুবিধা নাই, এগুলো ঠিক হয়ে যাবে।

৮ ঘন্টা পড়ার টেবিলে কতটা ইংলিশ লিখে শিখবেন? দু ঘন্টায় তার চেয়ে বেশি এবং বিচিত্র শব্দের কথা বাস্তবে বলা হয়ে যায়। তাই বলতে শিখুন জীবন গড়ুন। সফল চাকরীর প্রথম ধাপ। কথা বলার সময় কেউ বলবেনা যে গ্রামার ভুল কেন চুক্তিতে সই হবেনা। কিন্তু গ্রামারে পন্ডিট হয়েত আপনি লিখে দিয়া ডিল করতে, ক্লায়েন্টকে খুশি করতে পারবেন না। হাজার হাজার কথা বলার শেষে এক পাতার একটি চুক্তিতে সই করার জন্য রিটেনে পড়ে থাকা বোকামী।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
19 মে 2020 "English" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ayman (349 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
07 সেপ্টেম্বর 2020 "নিত্য সমস্যাবলী" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Lamyea Noor (390 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
0 টি ভোট
0 টি উত্তর
1 Online Users
0 Member 1 Guest
Today Visits : 8447
Yesterday Visits : 2293
Total Visits : 5086159
...