0 টি ভোট
"জীব বিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (542 পয়েন্ট)

1 উত্তর

+2 টি ভোট
করেছেন (3.6k পয়েন্ট)

না এটা ঠিক নয়। বৈদ্যুতিক শকের সাথে ডিম পাড়া বা বাচ্চা দেওয়ার কোন সম্পর্ক নাই।


সম্পর্ক আছে দুটো বিষয়ের।

১। দৈহিক আকারঃ বিষয়টা হচ্ছে প্রাণির দৈহিক আকার মিনিমাম এতটা বড় হতে হবে যে, যে পরিমান বড় হলে নিজ দেহই কিছু পরিমান ইলেক্ট্রন দিতে পারে বা নিতে পারে।

পাখির দেহ ছোট হওয়ায় এটির দেহে ইলেক্ট্রন কম। একারনে এসি লাইনে পাখি বসলে লাইন ভোল্টেজের কারনে পাখির দেহে ইলেক্ট্রন দিতে পারেনা কারন লাইনে ইলেকট্রন থাকলেও দেহে ধারন ক্ষমতা নাই। আবার লাইন পাখির দেহ থেকেও কোন ইলেক্ট্রন নিতে পারেনা। কারন দেহ ছোট। সামান্য পরিমান ইলেক্ট্রন দানের ক্ষমতা তার নাই, কারন দেহের যে যৌগ গুলো বন্ধন গঠন করে আছে তা থেকে ইলেক্ট্রন মুক্ত হতে পারেনা।

কাজেই পাখির দেহের সাথে ইলেকট্রন আদান প্রদান করতে না পারায় কোন বৈদ্যুতিক সার্কিট সৃষ্টি হয়না বলে পাখি কোন শক অনুভব করেনা। অপর দিকে দেহ বড় হলে, কিছু ইলেক্ট্রন প্রদান ক্ষমতা থাকলে ধরি এসি বিদ্যুতের পজিটিভ বা সম্মুখ ওয়েভ চক্রের সময় কেবল থেকে কিছু ইলেক্ট্রন দেহে চলে গেল, দেহ তা ধারন করল। পরমুহুর্তে নেগেটিভ চক্রের সময় সেই পরিমান ইলেক্ট্রনসহ দেহ থেকে আরও কিছু ইলেক্ট্রন কেবলে চলে আসল।

ফলে দেহ ও কেবল এর সংযোগ স্থলে একটি বৈদ্যুতিক সার্কিট গঠিত হয় ও ইলেকট্রন আদান প্রদানের ফলে বিদ্যুৎ প্রবাহ সৃষ্টি হয়। ফলে দেহ বিশাল শক ফিল করবে বা শক লাগবে। ইলেক্ট্রনের পরিমান বেশি হলে শকের পরিমান বেশি হয়।


২। আরেকটি শর্ত হল দেহ খুবই ছোট যা ইলেকট্রন দিতেই পারেনা , নিতেও পারেনা। তবুও এটি শক খাবে তখনি যখন পাখির দেহটি ফেজ ও নিউট্রান/আর্থ কেবলকে স্পর্শ করে।

এক্ষেত্রে ফেজ থেকে ইলেক্ট্রন পাখির দেহের মধ্য দিয়া নিউট্রান বা আর্থে যায়। দেহ মাধ্যমিক পরিবাহক হিসাবে কাজ করে ফলে শক খেয়ে পুড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

আরও বুঝতে এই প্রশ্নটির উত্তর দেখুন। এটি আপনার প্রশ্নটির মত না হলেও মাঝের পর থেকে উত্তর প্রাসঙ্গিক।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
04 মার্চ "রোগ ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন mitu (268 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
2 টি উত্তর
1 Online Users
0 Member 1 Guest
Today Visits : 8996
Yesterday Visits : 2293
Total Visits : 5086708
...