"ইন্টারনেট ও ওয়েবসাইট" বিভাগে করেছেন
স্যাটেলাইট ইন্টারনেট কি?

স্যাটেলাইট ইন্টারনেট কি ফ্রি?

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন
এর উত্তর হ্যা অথবা না দুটোই হতে পারে। অন্যন্য ইন্টারনেট সেবার মতই। ধরুন আমি একজন ইন্টারনেট সেবাদানকারী। 

এখন আমি যদি আপনার কাছ থেকে ২০০০ টাকা মাসে নিয়া লাইন দেই তাতে কারও কিছু করার নাই। সরকার বড় জোর অনুরোধ করতে পারে দাম কমাতে। আবার আমি যদি নিজে লস করে আপনাকে ফ্রি লাইন দেই তাহলেও কারও কিছু করার নাই, সরকারকে ভ্যাট ট্যাক্স নিজ পকেট থেকেই দিয়া দিলে সরকারতো কিছু বলবেনা। 

স্যাটেলাইট এর ক্ষেত্রেও একই বিষয়। তবে স্যাটেলাইট থেকে ইন্টারনেট দিলে কস্টিং খরচ বাদ দিলে কম খরচে ইন্টারনেট দেওয়া যায়। যেমন ধরুন কেবল সংযোগের ক্ষেত্রে কেবল দিতে, মিস্ত্রি পাঠাতে একটা খরচ আছে সেগুলোও আমাকে আপনাদের কাছ থেকে আয় করতে হয় তাই যে খরচ আপনার হবে, স্যাটেলাইটের ক্ষেত্রে কেবল টানার ঝামেলা নাই বলে সেই খরচ কমে যায়।

কেন স্যাটেলাইট থেকে ফ্রি ইন্টারনেটে দেওয়া যায়না আবার যায় তা আরও ভাল বুঝতে হলে ইন্টারনেট কি সেটা আগে বুঝতে হবে। এখানে সহজ ভাবে তুলে ধরছি।  বোঝানোর জন্য নিজ ভাষায় বলব বলে বইয়ের সাথে নাও মিলতে পারে।

ইন্টারনেট কিঃ ইন্টারনেট এমন কিছু নয় যে, তার একটি নির্দিষ্ট উৎস থাকবে। 

একটি উদাহরন খেয়াল করুন, আপনি যখন আপনার মোবাইলকে ডাটা কেবলের সাহায্যে পিসিতে লাগান মোবাইলে কোন ফাইল বা ভিডিও নেওয়ার জন্য, তখন কম্পিউটার হচ্ছে উৎস যেখানে ফাইল আছে, আর মোবাইল হচ্ছে রিসিভার যেখানে দরকার।

আর পিসি ও মোবাইলের মধ্যে সংযোগ কারী ডাটাকেবলটি হচ্ছে ইন্টারনেট যা ফাইল বা তথ্যকে দুটি ডিভাইসের মধ্যে পরিবহন করে।

শেয়ারইট তো প্রতিদিন ব্যবহার করছেন। এটিও ইন্টারনেট যার মাধ্যমে দুটি মোবাইলের মধ্যে ফাইল দেওয়া মেওয়ার কাজ চলে।

তো যাই হোক ইন্টারনেট এমনই একটি সংযোগ ব্যবস্থা মাত্র যার মাধ্যমে পৃথিবীর সার্ভার গুলোর সাথে আপনি ফাইল দেওয়া মেওয়ার জন্য যুক্ত হতে পারেন। ফেসবুক বা এই অন্বেষা সাইট যখন আপনি চালাচ্ছেন তখন এর মানে হল ফেসবুক বা অন্বেষা সার্ভার কম্পিউটারের সাথে আপনার মোবাইলটা যুক্ত করে ফাইল দেওয়া দেওয়া করছেন। শুধু অতিরিক্ত বিষয় হচ্ছে এখানে আপনি ডাটা কেবলের বদলে ব্রডব্যান্ড কেবল বা ফাইবার কেবল ব্যবহার করছেন ওয়ারলেস বা স্যাটেলাইটের ক্ষেত্রে এটা হয় ওয়াইম্যাক্স বা অন্যকো মাইক্রোওয়েভ কানেকশন যার মাধ্যমে শুধু আপনার ফাইল গুলো চলাচল করছে। আপনি অন্বেষাতে উত্তর পড়ছেন এর মানে হল যখন আপনি উত্তর দেখার জন্য ক্লিক করেন তখন অন্বেষা সার্ভার থেকে উত্তর লেখা গুলো টেক্সট ফাইল বা html ফাইল আকারে আপনার মোবাইলে যাচ্ছে। কাজেই এসকল লেখাগুলোও কোন না কোন ফাইল। 

স্যাটেলাইট ইন্টারনেট কিঃ আমাদের দেশে ফাইবার কেবল বলতে আমরা বুঝি যে কক্স বাজারের সমুদ্রের তলা দিয়া একটি ফাইবার কেবল সিঙ্গাপুর স্টেশনে চলে গেছে এর মাধ্যমেই ইন্টারনেট আসে।

কিন্তু তার মানে এই না যে সিঙ্গাপুর ইন্টারনেট উৎস। আসলে সিঙ্গাপুর স্টেশন থেকে সকল সার্ভারে লাইন চলে গেছে। স্টেশন মানে ভাগ হয়ে যাওয়ার যায়গা। মেইন সুইচ থেকে যেমন বিদ্যুৎ লাইন ভাগ হয়ে দুই তলা তিন তলা বা রান্না ঘরে যায়।

স্যাটেলাইট তেমনি একটি স্টেশন মাত্র। উৎস নয়। যদি আমাদের দেশে স্যাটেলাইট ইন্টারনেট চালু হয় তবে তার অর্থ হচ্ছে আপনি ইন্টারনেটে যা করছেন সেই ফাইল বা কাজের নির্দেশগুলো সরাসরি মাইক্রোওয়েভ তরঙ্গের মাধ্যমে স্যাটেলাইট স্টেশনে চলে যাবে। স্যাটেলাইট সেখান থেকে আবার এই পৃথিবীর বুকে যেখানে সার্ভার কম্পিউটার গুলো আছে যেমন অন্বেষা সার্ভারে, ফেসবুক সার্ভারে ফাইল পাঠাবে। এভাবেই এগুলো মূলত ডিস্ট্রিবিউশন স্টেশন হিসাবে কাজ করে।

তাহলে টাকা নেয় কেন, এই টাকা যায় কোথায়? ওয়েব সাইটের ফাইল গুলো যেকোন যায়গা থেকে দেখা বা আদান প্রদানের জন্য সার্ভার কম্পিউটার কে ২৪ ঘন্টা চালু রাখতে হয়। কোটি কোটি মানুষ একই সাথে নানা রকম কাজ করে। এই কাজ গুলো নিয়ন্ত্রন ও সম্পাদনের জন্য সার্ভার কম্পিউটারে সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হয়। এগুলো বানাতে যে বিশাল খরচ আছে তা মূলত সার্ভার ব্যবহারকারীরা শোধ করে দেয়। এবং আপনারা অন্বেষা ব্যবহারের সময় যে ডাটাগুলো আদান প্রদান করেছেন যেমন গত মাসে মোট ১ টেরাবাইট ডাটা আপনারা সবাই ব্যবহার করেছেন। এই ১ টেরাবাইটের টাকা আমাকে সার্ভার কম্পিউটার মালিকদের শোধ করে দিতে হয়েছে। এজন্য আপনারা অন্বেষা ফ্রি ব্যবহার করতে পারেন।

যদি এটি সত্যি হয় তাহলে আপনারা যে টাকা দিয়া ডাটা প্যাক কেনেন সেই টাকা কোথায় যায়?

না যা ভাবছেন তা মোটেও নয়। আপনি জিপি,রবি, বাংলালিংক বা টেলিটক থেকে ২০-৫০ টাকা খরচ করে ১ জিবি ডাটা কিনলে বা ব্রডব্যান্ড ফাইবার ওয়াইফাই লাইনে যে বিল দেন সেই টাকার ১ পয়সাও আমরা পাইনা। এইটাকা মূলত ঐ কোম্পানি যাদের কাছ থেকে আপনি ডাটা নিচ্ছেন, ওরাই নেয়। আর ভ্যাট, তরঙ্গ হিসাবে সরকার কিছু নেয়। আর কক্স বাজার স্টেশন যারা চালাচ্ছে তারাও কিছু নেয়। এই টাকা সার্ভারের লোকজন পাইনা, আমরা সার্ভার ব্যবহারকারীরাও পাইনা। তবে সার্ভার ব্যবহার কারী মানে আমরা সার্ভার মালিকদের টাকা দিয়া দেই। আমাদেরই সব খরচ।

স্যাটেলাইটের ক্ষেত্রেঃ ধরুন কেউ স্যাটেলাইট থেকে আপনাকে ইন্টারনেট দিচ্ছে। তাহলে প্রথমে স্যাটেলাইট  তৈরি, আকাশে স্থাপন, পৃথিবীতে স্টেশন করা, মেইনটেইন পরিচালনা ইত্যাদি কাজে বিশাল খরচ আছে। সরকারী পার্মিশন ট্যাক্সও দিতে হবে ঐ স্যাটেলাইট ব্যবসায়ীর। 

এখন ঐ ব্যক্তি যদি এই খরন নিজ পকেট থেকে দিয়া আপনাকে ফ্রি দেয় তাহলে অবশ্যই আপনি স্যাটেলাইট ইন্টারনেট ফ্রি পাবেন। আর মালিক দুদিনে ফকির হয়ে যাবে। আর যদি স্যাটেলাইট ব্যাবসায়ী আপনাকে ফ্রি না দেয়, সেতো এগুলো করছে ব্যবসা লাভ করার জন্য, তাহলে তারা আপনাকে ফ্রি দিবেনা।

তাহলে স্যাটেলাইট ইন্টারনেট কি দরকারঃ ঐ যে প্রথম বললাম কেবল টানাটানির ঝামেলা নাই তাই স্যাটেলাইট ইন্টারনেট এ খরচ একটু কমে যাবে, সস্তাই দেওয়া সম্ভব হবে।

ফ্রি এর কি কোন উপায় নাই? হ্যা আছে। ফ্রি পাইতেও পারেন।

আমরা যেমন সার্ভার মালিকদের সকল খরচ মিটিয়ে দেই তেমনি আমাদের মত কেউ যেমন ডিশ সাপ্লাই কারীরা স্যাটেলাইট খরচ যদি দিয়া দেই তখনই কেবল স্যাটেলাইট ব্যাবসায়ী আপনাকে ফ্রি ইন্টারনেট দিতে পারে। কারন তার খরচ ও লাভ সব ডিশ ব্যবসায়ীরা মিটিয়ে দিচ্ছে। আবার ডিশ মালিকরা সে টাকা কিন্তু টিভি গ্রাহকদের কাছ থেকে নিয়া নিচ্ছে।

হ্যা এখানে কিন্তু ডিশ ব্যবসায়ীরা আপনার ইন্টারনেট খরচ দিয়া দেবেনা। মূলত স্যাটেলাইট প্রতিষ্ঠাকারী মালিক বা যিনি সকল খরচ করেন তিনি ফ্রি দিয়া অন্যভাবে টাকা উত্তোলন করেন।

যেমন আগেই বললাম যে সার্ভার মালিকদের টাকা আমরা দিয়া দেই, প্রশ্ন হল তাহলে আমাদের দেই কে? 

আসলে আমরা যারা সাইট চালাই তাদের দুটো দল আছে। প্রথম দল হল তারাই যারা সাইট থেকে ইনকাম করেনা। বা এখনো ইনকাম শুরু হয়নি তারা পকেটের টাকায় খরচ করে। এই দল ছোট খাট ভাবে সার্ভার ব্যবহার করে অল্প খরচে, যা তারা পকেট থেকে খরচ করে।

দ্বিতীয় দল যেমন ফেসবুক এরা বিজ্ঞাপন দাতাদের বিজ্ঞাপন সাইটে দেখানোর বদলে বিজ্ঞাপন দাতা কোম্পানির কাছ থেকে ইনকাম করে। আবার যারা মাল বিক্রি করে তারাও বিক্রি করেই টাকা তোলে। আর বিজ্ঞাপন দাতা কোম্পানিরা তাদের মাল প্রচার থেকে বিক্রি বাড়িয়ে টাকা তোলে। এভাবেই ইন্টারনেটে অর্থপ্রবাহ ঘটে।

ফ্রি ইন্টারনেট দেওয়ার আরও একটা উপায় আছে। স্যাটেলাইট কোম্পানি আপনাকে ফ্রি ইন্টারনেট দেওয়ার বদলে, ইন্টারনেট চালনার সময় আপনার কাছে বিভিন্ন পেজে বিজ্ঞাপন পাঠাবে। এভাবে তারা ফ্রি দিয়াও টাকা উসুল করতে পারে। এজন্যই ফ্রি জিনিস ভাল হয়না।

যাইহোক প্রশ্নের উত্তরে শেষ কথা এটাই যে, সার্ভিস প্রদানকারী ব্যক্তি যদি লস খেতে চান, সরকার যদি ভুর্তুকি দেয় তবেই স্যাটেলাইট থেকে ফ্রি ইন্টারনেট দেওয়া পাওয়া সম্ভব।

আর যদি সরকার ভুর্তুকি না দেয়, সেবা দাতা লস না করে, ট্রিক্স না করে তবে ফ্রি দেওয়া সম্ভব না। পলিসির নিয়ম অনুযায়ী কিছু বিষয় বাদ দিয়ে লেখা হয়েছে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

10 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 10 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 6332
...