0 টি ভোট
"পদার্থ বিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (661 পয়েন্ট)
গাড়িতে চড়ার সময় আমাদের গতি কেমন

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (661 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

জড়তাঃ একটি বস্তু যে অবস্থায় আছে, চিরকাল সেই অবস্থা বজায় রাখার যে প্রবণতা তাকে বস্তুর জড়তা বলে।

জড়তা বজায় রাখার শর্তঃ বস্তুর উপর বাহ্যিক কোন প্রকার বল যেমন ধাক্কা, টান, পুশ, চৌম্বক, অভিকর্ষ বাধা ইত্যাদি প্রকার বল প্রযুক্ত না হলে বস্তুর জড়তা বজায় থাকবে।

জড়তা বলতে শুধু স্থিরকে বোঝায়না। গতির জড়তাও হতে পারে। যেমন বস্তু যে অবস্থায় গতিশীল, যদি সেই একই গতি চিরকাল বজায় থাকে, সময়ের সাথে পরিবর্তন না হয় তবে সেটিও জড়তা। একে গতির জড়তা বলে।

বৃহত্তম বস্তুর প্রভাবঃ মহাবিশ্বের প্রতিটি বস্তু কণা একে অপরকে তার নিজের দিকে কেন্দ্র বরাবর আকর্ষন করছে। একে মহাকর্ষ বলে। যে বস্তুর আয়তন ভর ভরবেগ বেশি সেই বস্তুর আকর্ষন ক্ষমতাও বেশি। বিশাল দিঘিতে যেমন এক ড্রপ জলের কোন প্রভাব নেই, সাগরে যেমন এক বালতি পানির কোন প্রভাব বোঝা যায়না তেমনি অতি বৃহৎ বস্তুর সাপেক্ষে ক্ষুদ্র বস্তুর এই আকর্ষন বল বা প্রভাব বোঝা যায়না।

ঘর্ষনঃ ঘর্ষন এমন একটি প্রক্রিয়া যেখানে একটি বস্তু আরেকটি বস্তুর উপর দিয়ে চলতে সাক্ষম। ঘর্ষনের জন্যই গতিতে বাধা সৃষ্টি হয় বলে গতিকে উপলব্ধি করা যায়। 

আমরা যখন গাড়িতে বা যানবাহনে চড়িঃ ধরি আপনি মটর বাইকে চড়ছেন। এই অবস্থায় মটর সাইকেল ছোট হওয়ায় আপনাকে আকর্ষন বল দ্বারা প্রভাব করতে পারেনা। বরং মটর সাইকেলের আকর্ষন বলকে ওভার করে পৃথিবী আপনাকে যে বলে আকর্ষন করছে সেটিই প্রাধান্য পায়। তাই মটর সাইকেল মুলত আপনাকে টেনে নিয়া যাচ্ছে। ফলে আপনি মটরসাইকেলের সাপেক্ষে একটি টান অনুভব করেন। কারন পৃথিবীর আকর্ষন সরলরেখায় আপনাকে স্থির ভাবে আকর্ষন করছে আর মটর আপনাকে টেনে নিয়া যাচ্ছে। অন্যদিকে বাতাস বা বায়ু স্থির। চলার সময় বাতাস আপনার গতিকে বাধা দিচ্ছে ফলে বাতাসের সাথে আপনার দেহের ঘর্ষন হচ্ছে। এই ঘর্ষনের জন্যই আপনি গতি অনুভব করতে পারছেন।


আবার
যদি আপনি ট্রেনের কামরায় থাকেন,
তাহলেও প্রায় একই বিষয়, শুধু এক্ষেত্রে ট্রেন অপেক্ষাকৃত বেশ বড় আপনার চেয়ে, তাই ট্রেন নিজেই কিছুটা প্রভাব করবে, আবার ট্রেনের গতি প্রায় একই বা ধ্রুব তাই সামান্য গতির জড়তার সৃষ্টি হবে, গতির জড়তা উপরে বলা হয়েছে। এছাড়া কামরায় থাকায় বাতাসের ঘর্ষন খুব বেশি হবেনা আপনার সাথে। এসব কারনে মটর সাইকেল অপেক্ষা আপনি গতি অনেক কম বুঝতে পারবেন। 

তদ্রুপ জাহাজের কেবিনে বদ্ধ অবস্থায় ঢেউ জনিত ধাক্কা ছাড়া আপনি গতি বুঝতেই পারবেন না। কারন জাহাজের গতি কম, বাতাসের ঘর্ষন নাই। জাহাজের সাপেক্ষে আপনার নিজেকে স্থির মনে হবে ফলে গতি বুঝতে পারবেন না। 

ঠিক একই ভাবে পৃথিবী বিশাল। পৃথিবী নিজ অক্ষে ও কক্ষপথে একই ধ্রুব বেগে গতিশীল। তাই এখানে গতির জড়তার জন্য আপনি পৃথিবীর সাপেক্ষে স্থির মনে করবেন। পৃথিবীর গতি খুব বেশি হলেও বৃহত্তমের কারনে সে প্রভাব কমে যায়। এবং পৃথিবীর সাথেই বায়ুমন্ডলও ঘুরছে। ফলে আপনার সাথে কোন রকম ঘর্ষনজনিত বাধা বা বল ক্রিয়া থাকছেনা। পৃথিবীর সাপেক্ষে আপনি খুবই ক্ষুদ্র, আপনার নিজের আকর্ষন বল সমুদ্রের মত পৃথিবীর আকর্ষন বলকে কোন প্রভাব ফেলতে না পারায় আপনি পৃথিবীর সাপেক্ষে নিজেকে গতিহীন বা স্থির মনে করেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9 Online Users
0 Member 9 Guest
Today Visits : 2296
Yesterday Visits : 8512
...