"নেটওয়ার্ক" বিভাগে করেছেন
প্রযুক্তির কি কি খারাপ দিক রয়েছে

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন
বলা হয়ে থাকে যে, বর্তমান যুগ প্রযুক্তির যুগ। বৈজ্ঞানিক কলাকৌশল ব্যবহারের মাধ্যমে উন্নয়ন, মানুষের কর্মকে সহজকরন, কোন কোন ক্ষেত্রে যান্ত্রিক সহায়তায় পূরা কাজ করে নেয়া প্রভুতি বিষয়কে একত্রে প্রযুক্তির অন্তর্ভূক্ত কাজ বা উন্নায়ন বলা হয়ে থাকে। আর এই প্রযুক্তি ব্যবহারে সময়ই হচ্ছে প্রযুক্তি যুগ। প্রযুক্তি যেমন মানুষের জীবনকে সহজ, উপভোগ্য করেছে। তেমনি দুঃসাধ্যকে সাধন করেছে। সময় বাচিয়েছে। মানুষের কর্ম ক্ষেত্রকে প্রসারিত করেছে এমনকি চিকিৎসা বিজ্ঞান মানুষের জীবনকে রক্ষা করছে। এতদ্বাসত্বেও প্রযুক্তির বেশ কিছু খারাপ দিক রয়েছে। নিম্নে আলোচনা করা হলঃ-

১। প্রযুক্তির চর্চা কিছু মানুষকে জ্ঞানী করে তুললেও সাধারণ মানুষকে কিছুটা জ্ঞানচর্চা থেকে বিরত রাখতে ভুমিকা পালন করছে।

২। মানুষের শ্রমের যায়গা প্রযুক্তি মেশিন গ্রহন করায় প্রচুর মানুষ কর্ম হারিয়ে বেকার হচ্ছে।

৩। প্রযুক্তি দ্রুত ও নিখুত দক্ষতায় কাজ করতে পারে বিধায় আগে যেখানে ১০০ শ্রমিক কাজ করত এখন সেখানে হয়ত ২-৫ জন মানুষ কাজ করছে। ফলে শ্রমিক বেকার হচ্ছে।

৩। উপকারের সাথে সাথে অপকারী প্রযুক্তির উন্নয়ন ঘটায় মানুষের জীবনে শঙ্কা বেড়েছে। 

৪। প্রযুক্তি দখল বেহাতে গেলে তা উপকারের চেয়ে অপকার ও স্বার্থে ব্যবহারের ফলে মানুষের ভোগান্তি বাড়ে।

৫। প্রযুক্তির খারাপ দিক ব্যবহার করে যুদ্ধ, সন্ত্রাস, মিথ্যা প্রচার  ইত্যাদি বাড়ে।

৬। অনৈতিক কাজেও প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে সমাজে অনৈতিক কাজ অপরাধ বাড়তে পারে। 

৭। ভারসাম্যহীন প্রতিযোগীতার সৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে জিততে অপরাধের জন্ম হয়। 

৮। প্রযুক্তি কিছু মানুষকে ভোগ বিলাসী, অলস করে দিচ্ছে। কিছু মানুষকে দারিদ্রতায় নিক্ষেপ করছে।

৯। প্রযুক্তিগত যন্ত্রপাতী বৃদ্ধির ফলে তা অব্যবহৃত অবস্থায় এমন বর্জ্যের সৃষ্টি করছে যা রাখার জায়গা না থাকায় ভুমি দখল করছে, দূষন ছড়াচ্ছে।

১০। জালানি প্রযুক্তির ফলে দূষন ভুক্ততার চেয়ে দ্রুত গতিতে পরিবেশ দূষন ঘটছে। 

এছাড়া আরও অনেক অপকারী দিক রয়েছে। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 2 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 811
...