"ইসলাম" বিভাগে করেছেন
অমুসলমান দের বাসায় সালাত আদায় করা যাবে কি? সেক্ষেত্রে সালাত শুদ্ধ হবে কিনা

2 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন

যদি সে ঘর আপনি ক্রয় করেন কিংবা ভারা নেন তবে জায়িজ । যেহেতু সেটা অমুসলিমের ঘর তাই সেখানে নাপাকী দ্রবাদি বা প্রাণীর ছবি ও মুর্তি থাকতে পারে যা তারা পূজা করে। তাই সেখানে সালাত আদায় করার আগে পরিষ্কার করে নিতে হবে। 


যদি অন্যকোন মাধ্যমে মানে বন্ধুত্ব বা আত্মীয়তার সূত্রে হয় তবে প্রয়োজন ছাড়া সালাত আদায় করা ঠিক কাজ হবে না। তবে সালাত আদায় করলে সমস্যা নেই। তবে বাসা পরিষ্কার থাকতে হবে ।


বিস্তারিত - এখানে দলিল আছে।

+1 টি ভোট
করেছেন
আমি ইসলামিক বিষয়ে গবেষনা করিনা তাই মুখস্থ কোন রেফারেন্স উল্লেখ করতে পারবনা। কিন্তু এইটুকু বলতে পারি যে, হ্যা নামাজ পড়া যাবে। নামাজের সম্পর্কে স্পেসেফিক কোন স্থানের কথা উল্লেখ পাওয়া যায়না। তবে এই উল্লেখ আছে যে, পরিস্কার পরিচ্ছন্ন, পাক থাকতে হবে। স্থান পাক সাফ বলতে বোঝায় পরিস্কার থাকবে, কোন প্রাণির বিষ্ঠা, মরা দেহবশেষ পচনশীল অবস্থায় থাকবেনা। স্থান থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে এমনও হবেনা, তবে অন্য জায়গার গন্ধ বাতাসে সেখানে আসলে তাতে অসুবিধা না। 

প্রশ্ন অনুযায়ী অমুসলিমদের বাড়িতে নামাজ পড়া যাবে যদি সেই স্থানটি পরিস্কার ও দেখতে পাক বলে মনে হয়। এমনকি মন্দিরের কোন স্থানেও নামাজ পড়তে নিষেধ নাই যদি কতৃপক্ষ অনুমতি দেয়।

তবে এসকল ক্ষেত্রে খেয়াল রাখার বিষয় হচ্ছে ইচ্ছাকৃত মুর্তি বা প্রদর্শিত প্রাণির ছবির সামনের স্থানে নামাজ পড়া যাবেনা।

তবে এখানেও সুন্দর উপায় আছে তা হল আপনার নামাজের ব্যবস্থা করা উপলক্ষে অমুসলিম বাড়ির কর্তা বা কেউ যদি পর্দা করে ছবি, মুর্তি ইত্যাদি ঢেকে দিয়া আপনার স্থানের ব্যবস্থা করে তাহলে নামাজ পড়া যাবে।

আমি একটি শোনা উদাহরন দেই। একটি রেকর্ডিং ওয়াজে শুনেছিলাম মাত্রঃঃঃ

একদা দুই অমুসলিম ব্যক্তি নবী (সাঃ) এর সাথে দেখা করতে আসলেন। নবী (সাঃ) তখন মসজিদের ভেতর ছিলেন। লোক দুজন বাইরে অপেক্ষা করছিলেন।

নবী (সাঃ) তাদের ভেতরে ডাকলে তারা জিজ্ঞাসা করলেন আপনার উপাসনালয়ে কি আমরা প্রবেশ করতে পারব? নবী (সাঃ) বললেন এটা উপাসনালয়। যদি আপনি এটাকে আপনার যোগ্য মনে করেন তবে প্রবেশ করতে পারেন।

এরপর ভেতরে কথা বলতে বলতে অনেক সময় কেটে গেল।

লোক দুটো তখন বললেন হে মোহাম্মাদ আমাদের প্রার্থনার সময় হয়ে গেছে,  আমরা বাইরে থেকে প্রার্থনা সেরে আবার এসে আলোচনা করব। তখন নবী (সাঃ)  বললেন, এখানে যদি প্রার্থনা করতে চাও করতে পার, যদি তা উপযুক্ত ও পবিত্র মনে কর। তখন লোক দুটি বলল অবশ্যই, এটা পবিত্র আমাদের অসুবিধা নাই।

এভাবে নবী(সাঃ)  উপাসনার জন্য পরিস্কার পবিত্র স্থানের কথা বলেছেন। নির্দিষ্ট  স্থানের কথা বলেননি। 

আবার বর্তমান সময়ে ইজমার দ্বারা সীকৃত যে, এমন ঘর যেখানে কিছু ছবি থাকতে পারে কিন্তু তা ইচ্ছাকৃত প্রদর্শনের জন্য নয়। যেমন পেপারের কোন ছবি বা পেপার ঘরে থাকলে নামাজের অসুবিধা নাই। কারন ঐসকল ছবি ঘটনার বর্ণনা হিসাবে খবর প্রকাশ করে। ইচ্ছাকৃত প্রদর্শনের জন্য ঐ ছবি রাখা হয়না।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি উত্তর
16 এপ্রিল "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন mitu
0 টি উত্তর
16 এপ্রিল "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন mitu
1 উত্তর
16 এপ্রিল "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন mitu
1 উত্তর
16 এপ্রিল "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন mitu
1 উত্তর
16 এপ্রিল "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন mitu
6 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 6 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 5874
...