"অনির্বাচিত বিভাগ" বিভাগে করেছেন
এসাইনমেন্ট পড়াশোনা

3 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন

Ajke class hoi ni .

0 টি ভোট
করেছেন

14 june ক্লাস হয়েছে। তবে একটি বিষয় পড়ানো হয়েছে। বাড়ির কাজটি হলঃ

বাংলা- বাবুরের মহত্ত কবিতাটির বইয়ের অনুশীলনীর 1 number সৃজনশীল প্রশ্ন H.W.। 
আর এভাবে উত্তর দেওয়া হবে না। আপনাকে অবশ্যই আলাদা করে টাইপ করে প্রশ্নটি করতে হবে।    
করেছেন
koi number srijonsil?
করেছেন
kokhon class hoiche?
0 টি ভোট
করেছেন

১৪ জুন সংসদ টেলিভিশনে একটি ক্লাস হয়েছে

বাংলা ১ম পত্র: বাবুরের মহত্ত্ব কবিতার সৃজনশীল প্রশ্ন ১ নং বাড়ির কাজ।

উত্তর:-------- 

                          ক নং

রনবীর চৌহান ছিলেন এক স্বদেশপ্রেমিক রাজপুত যুবক

                        খ নং

                        

কোন মানুষকে হত্যা করা যতটা কঠিন তার জীবন রক্ষা করা এর চেয়েও অনেক বেশি কঠিন।

কোন মানুষকে হত্যা করা সহজসাধ্য বিষয় নয়। অনেক

অনেক ক্ষেত্রেই হত্যাকারীকে জীবনের ঝুঁকি নিতে হয়।

তবে কোনো মানুষের প্রাণ বাঁচানো আরো কঠিন।প্রাণ নেওয়ার ক্ষমতা মানুষের থাকলেও প্রাণ দেয়ার ক্ষমতা কারো নেই। তাছাড়া কারো প্রাণ বাঁচানোর জন্য যেমন মানসিকতার প্রয়োজন হয় তা খুব বেশি মানুষের মাঝে লক্ষ্য করা যায় না। তাই জীবন কেড়ে নেওয়া যত কঠিন জীবন দান করা তার চেয়েও বেশি কঠিন।

                            গত নং

উদ্দীপকে বর্ণিত বড় মেয়ের আচরনে বাবুরের মহত্ত্ব কবিতার সম্রাট বাবরের মহানুভতার দিকটি ফুটে উঠেছে।

বাবুরের মহত্ত্ব কবিতা কালিদাস রায় মুঘল বাদশা বাবর এর মান প্রেমের কথা তুলে ধরেছেন। এক মেথরের শিশুকে বাঁচানোর জন্য তিনি নিজের জীবন বিপন্ন করেন।মত্ত হাতির কবল থেকে শিশুটির জীবন রক্ষা করেন তিনি।

উদ্দীপকে বর্ণিত বড় মিয়া একজন মহৎপ্রাণ মানুষ। স্রোতের তোড়ে ডুবে যাওয়া অসহায় শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য জীবনের ঝুঁকি নেন তিনি। শেষ পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার করতে সমর্থ হলেও নিজের মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।সম্রাট বাবর এর মতই উদ্দীপকের বড় মিয়া ও মহানুভবতার অনুপম দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করেছেন।

                          ঘ নং

উদ্দীপকে বাবুরের মহত্ত্ব কবিতার একটি বিশেষ দিক ফুটে উঠলেও কবিতা উদ্দীপকের প্রেক্ষাপট একনয়।

  

বাবুরের মহত্ত্ব কবিতা কালিদাস রায় মুঘল সাম্রাজ্যের মহান শাসক বাবুরের মহত্ত্ব পরিচয় তুলে ধরেছেন। ভারতবর্ষে মোগল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পরে বাবুর প্রজাদের মন জয় করতে ব্রতী হন। এই লক্ষ্যে সাধারণ মানুষের সদ্দবেস দিল্লির পথে পথে ঘুরে বেড়াতে থাকেন তিনি।

উদ্দীপকে বড়োমিয়া নামক একটি নিঃস্বার্থ মানসিকতার ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়। বন্যার পানিতে ভেসে যাওয়া শিশুটিকে বাঁচাতে তিনি নিজের জীবনের পরোয়া করেননি। শেষ পর্যন্ত নিজের জীবনের বিনিময়ে শিশুটিকে বাঁচাতে সক্ষম হন তিনি।

বাবুরের মহত্ত্ব কবিতার সম্রাট হিসেবে বাবরের মহত্ত্বের পরিচয় ফুটে উঠেছে।সেই সঙ্গে তাঁর আদর্শ ও মানবিক মূল্যবোধ প্রকাশ পেয়েছে।কিন্তু উদ্দীপকে বর্ণিত ঘটনার মাধ্যমে আমরা কেবল বড় মিয়ার উদার মানসিকতার প্রমাণ পাই। আলোচ্য কবিতায় ভারতের মোগল সাম্রাজ্যের গোড়াপত্তনের ইতিহাস বাবরের সংগ্রামী অভিযাত্রার কথাও তুলে ধরা হয়েছে। এধরনের কোন প্রসঙ্গ উদ্দীপকে নেই। কবিতায় বাবুরের মহত্ত্ব প্রমাণ পাওয়া যায় তার সঙ্গে উদ্দীপকের রয়েছে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। কিন্তু উদ্দীপকের ঘটনায় তেমন কোনো বিশেষ পটভূমির ইঙ্গিত নেই। তাই সার্বিক বিবেচনায় বলা যায় প্রশ্নোক্ত উক্তি টি যথাযথ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
10 জুন 2020 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sharmin Shanu
2 টি উত্তর
21 জুন 2020 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sharmin Shanu
2 টি উত্তর
17 জুন 2020 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sharmin Shanu
1 উত্তর
11 জুন 2020 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sharmin Shanu
6 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 6 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 5659
...