0 টি ভোট
"বাংলা দ্বিতীয় পত্র" বিভাগে করেছেন (349 পয়েন্ট)

https://drive.google.com/file/d/10fpD_bMkbZ_vX_7UQLkTyrgLfO9ZkWzZ/view?usp=drivesdk

এই লিংকে question টি করা আছে। 

(লিংক খুলতে না পারলে মন্তব্য করুন পারিনি তখন Question গুলো লিখে দিব। আগে try করুন)
করেছেন (948 পয়েন্ট)
পারছি না, লিখে দেন।   
করেছেন (349 পয়েন্ট)
1)কারক কাকে বলে কত প্রকার ও কি কি?

2)বিভক্তি কি?বাংলা ভাষায় কয় ধরনের বিভক্তি আছ?সংজ্ঞাসহ উদাহরণ দাও

3)একটি ছক একে বিভিন্ন প্রকার বিভক্তি চিহ্ন  দেখাও।

4)তুমি কিভাবে সহজে কারক বিভক্তি নির্ণয় করবে বুঝিয়ে লিখ।

[1,2, 4 type করে এবং  (3 নম্বর খাতায় লিখে চিহ্ন ভালো করে যেন দেখা যায়)]
করেছেন (948 পয়েন্ট)
৩ নং উত্তরে একবচন ও বহুবচনে দেওয়া শব্দগুলোই চিহ্ন। তাই টাইপ করেই দিলাম। 
করেছেন (948 পয়েন্ট)

দেখেন বুঝেন কি না।

image

করেছেন (349 পয়েন্ট)
Finally সমস্যা দূর হলো শুধু মাত্র আপনার জন্য।অসংখ্য ধন্যবাদ।   

2 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (948 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

১. কোনো বাক্যে ক্রিয়াপদের সাথে অন্যান্য পদের বিশেষ করে নামপদের যে সম্পর্ক তাকে কারক বলে।

                 কারক সাধারণত ৬প্রকার। যথাঃ-
          (i)কর্তৃকারক
          (ii)কর্মকারক
          (iii)করণকারক
          (iv)সম্প্রদান কারক
          (v)অপাদান কারক
          (vi)অধিকরণ কারক

২. প্রচলিতভাবে কারক নির্দেশক চিহ্ন বা লক্ষণকে বিভক্তি বলে।
                      বিভক্তি ২প্রকার। যথাঃ-
                (i)ক্রিয়া বিভক্তি
                (ii)শব্দ বিভক্তি
ক্রিয়া বিভক্তিঃ
       যেসব বিভক্তি কোনো ধাতুর পরে যুক্ত হয়ে ক্রিয়াপদ তৈরি করে তাদেরকে ক্রিয়া বিভক্তি বলে। যেমন-
                      *ঘরে বসে শিক্ষার্থীরা ক্লাস করছে।
            এখানে,
            বসে (ধাতুর চিহ্ন বস+এ বিভক্তি)
            করছে (ধাতুর চিহ্ন কর+ছে বিভক্তি)
শব্দ বিভক্তিঃ
        যেসব বর্ণ বা বর্ণগুচ্ছ বাক্যে কোনো শব্দের পরে বিশেষত নামশব্দের পরে যুক্ত হয়ে অন্য শব্দের সঙ্গে সম্বন্ধ স্থাপন করে তাদেরকেই শব্দ বিভক্তি বলে। যেমন-
                               *ঘরে বসে শিক্ষার্থীরা ক্লাস করছে।
              এখানে, 
              ঘরে (ঘর+এ বিভক্তি)
              শিক্ষার্থীরা (শিক্ষারথী+রা বিভক্তি)
              ক্লাস (ক্লাস+০ বিভক্তি)      

৩. বাংলা শব্দ বিভক্তি সাত প্রকার। নিচের ছকে তা চিহ্নসহ উপস্থাপন করা হলোঃ (আপনি ছকটা এঁকে নিয়েন)
         বিভক্তি                    একবচন                           বহুবচন
         প্রথমা                    ০(শূন্য),অ                   রা,এরা,গুলি,গুলো
         দ্বিতীয়া                  কে,রে(এরে)                  দের,দিগকে,দিগরে
         তৃতীয়া                দ্বারা,দিয়া,কর্তৃক        দিগকে দ্বারা,দের দিয়ে,দিগ কর্তৃক
         চতুর্থী                    কে,রে(এরে)                  দিগকে,দিগেরে
         পঞ্চমী                 হতে,থেকে,চেয়ে        দের হতে,দের থেকে,দের চেয়ে
          ষষ্ঠী                         র,এর                            দিগের,দের
         সপ্তমী                   এ,য়,তে,এতে                      দিগে,দিগেতে

৪. আমি আমার শিক্ষকের দেখান পদ্ধতিতে সহজেই কারক বিভক্তি নির্ণয় করব।
কারক নির্ণয়ঃ
(i)বাক্যতে 'কে' দ্বারা প্রশ্ন করে যে উত্তর পাওয়া যায় তা-ই কর্তৃকারক। 
(ii)বাক্যতে 'কী' দ্বারা প্রশ্ন করে যে উত্তর পাওয়া যায় তা-ই কর্মকারক। 
(iii)বাক্যতে 'কী দিয়ে' দ্বারা প্রশ্ন করে যে উত্তর পাওয়া যায় তা-ই করণ কারক। 
(iv)বাক্যতে 'কাকে' দ্বারা প্রশ্ন করে যে উত্তর পাওয়া যায় তা-ই সম্প্রদান কারক। 
(v)বাক্যতে 'কোথা থেকে' দ্বারা প্রশ্ন করে যে উত্তর পাওয়া যায় তা-ই অপাদান কারক। 
(vi)বাক্যতে 'কখন' বা 'কোথায়' দ্বারা প্রশ্ন করে যে উত্তর পাওয়া যায় তা-ই অধিকরণ কারক।
 এভাবেই আমি সহজে কারক নির্ণয় করব।
বিভক্তি নির্ণয়ঃ 
(i) ক্রিয়ার সাথে যে বিভক্তি যুক্ত হয় তা-ই ক্রিয়া বিভক্তি।
(ii)নামশব্দের পরে যে বিভক্তি যুক্ত হয় তা-ই শব্দ বিভক্তি।
(iii)নিচের ছকটির মাধ্যমে সহজেই বিভক্তি চেনা যায়ঃ
         বিভক্তি                    একবচন                           বহুবচন
         প্রথমা                    ০(শূন্য),অ                   রা,এরা,গুলি,গুলো
         দ্বিতীয়া                  কে,রে(এরে)                  দের,দিগকে,দিগরে
         তৃতীয়া                দ্বারা,দিয়া,কর্তৃক        দিগকে দ্বারা,দের দিয়ে,দিগ কর্তৃক
         চতুর্থী                    কে,রে(এরে)                  দিগকে,দিগেরে
         পঞ্চমী                 হতে,থেকে,চেয়ে        দের হতে,দের থেকে,দের চেয়ে
          ষষ্ঠী                         র,এর                            দিগের,দের
         সপ্তমী                   এ,য়,তে,এতে                      দিগে,দিগেতে
এখানে, দ্বিতীয়া অ চতুর্থী বিভক্তির চিহ্ন একই। তাই এগুলো চেনার উপায় হলো কর্মকারকে দ্বিতীয়া বিভক্তি এবং সম্প্রদান কারকে চতুর্থী বিভক্তি ব্যবহৃত হয়। 
               এভাবে বিভক্তিও আমি খুব সহজে নির্ণয় করব। 

করেছেন (349 পয়েন্ট)
আচ্ছা প্রথমা বিভক্তির বহুবচন নেই।বলেন 
করেছেন (948 পয়েন্ট)
দিয়েছি তো। রা, এরা, গুলি, গুলো। 
করেছেন (349 পয়েন্ট)
বলছি বহুবচন তো নেই। রা,রে তো বিভক্তি।আচ্ছা যাই হোক ছক করে ছবি তুলে পাঠান।আজকোর মধ্যেই 
করেছেন (948 পয়েন্ট)
অবশ্যই আছে। ক্লাস সেভেন এর ব্যকরণ বই নামিয়ে দেখেন। যাই হোক, ছবি পাঠাতে পারব না। আমি ল্যাপটপে উত্তর দেই। মা মোবাইল ধরতে দিবে না। দুঃখিত! 
করেছেন (349 পয়েন্ট)
আমি ৩ নম্বর কিছু বুঝতে পারছি না।আপনি একটি কাজ করেন পাশাপাশি না লিখে প্রথমা বিভক্তি একবচন ও বহুবচন এগুলো.......................এভাবে যান।  
করেছেন (948 পয়েন্ট)
আপনি কি শাহরিয়ার এর উত্তরটি বুঝছেন? বুঝলে আমি আর দিব না।
করেছেন (349 পয়েন্ট)
3 number karor ta bujhi na.acha প্রথমার নিচে রা,এরা দেওয়া,আবার ২য়া, ৩য়াতেও সেই অনুযায়ী দেওয়া কিন্তু ৪র্থ,৫ম এ নাই কিছু বুঝি না।3৷ নম্বর দেন plz কষ্ট করে।
+1 টি ভোট
করেছেন (1.1k পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
প্রথমটির উত্তর হল:
কারক শব্দটির অর্থ হলো- যা ক্রিয়া সম্পাদন করে।

বাক্যস্থিত ক্রিয়াপদের সঙ্গে নামপদের যে সম্পর্ক, তাকে কারক বলে।

কারক ছয় প্রকার:
১. কর্তৃকারক
২. কর্ম কারক
৩. করণ কারক
৪. সম্প্রদান কারক
৫. অপাদান কারক এবং
৬. অধিকরণ কারক।
দ্বিতীয় ও তৃতীয় টির উত্তর একসাথে হল:
বাক্যস্থিত একটি শব্দের সঙ্গে অন্য শব্দের অন্বয় সাধনের জন্য যে সকল বর্ণ যুক্ত হয়, তাদের বিভক্তি বলে।[১] বিভক্তিগুলো ক্রিয়াপদের সাথে নামপদের সম্পর্ক স্থাপন করে।

যেমন: ছাদে বসে মা শিশুকে চাঁদ দেখাচ্ছেন।

বাক্যটিতে ছাদে (ছাদ + এ বিভক্তি), মা (মা + ০ বিভক্তি), শিশুকে (শিশু + কে বিভক্তি), চাঁদ (চাঁদ + ০ বিভক্তি) ইত্যাদি পদে বিভিন্ন বিভক্তি যুক্ত হয়েছে।

বিভক্তি দুই প্রকার। যথা:- (১) শব্দ বিভক্তি বা নাম বিভক্তি ও (২) ক্রিয়া বিভক্তি।
০ (শূণ্য) বিভক্তি (অথবা অ-বিভক্তি), এ (য়), তে (এ), কে, রে, র (এরা) - এ কয়টিই খাঁটি বাংলা শব্দ বিভক্তি। এছাড়া বিভক্তি স্থানীয় কয়েকটি অব্যয় শব্দও কারক-সম্বন্ধ নির্ণয়ের জন্য বাংলায় প্রচলিত রয়েছে। যেমন - দ্বারা, দিয়ে, হতে, থেকে ইত্যাদি।

বাংলা শব্দ বিভক্তি বা নাম বিভক্তি কারক নির্দেশ করে বলে এগুলোকে কারক বিভক্তিও বলা হয়।[২]

বাংলা শব্দ-বিভক্তি সাত প্রকার:

বিভক্তিএকবচনবহুবচনপ্রথমা০, অ, এ (য়), তে, এতে।রা, এরা, গুলি (গুলো), গণ।দ্বিতীয়া০, অ, কে, রে (এরে), এ, য়, তে।দিগে, দিগকে, দিগেরে, *দের।তৃতীয়া০, অ, এ, তে, দ্বারা, দিয়া (দিয়ে), কর্তৃক।দিগের দিয়া, দের দিয়া, দিগকে দ্বারা, দিগ কর্তৃক, গুলির দ্বারা, গুলিকে দিয়ে, *গুলো দিয়ে, গুলি কর্তৃক, *দের দিয়ে।চতুর্থীদ্বিতীয়ার মতোদ্বিতীয়ার মতোপঞ্চমীএ (য়ে, য়), হইতে, *থেকে, *চেয়ে, *হতে।দিগ হইতে, দের হইতে, দিগের চেয়ে, গুলি হইতে, গুলির চেয়ে, *দের হতে, *দের থেকে, *দের চেয়ে।ষষ্ঠীর, এর।*দিগের, দের, গুলির, গণের, গুলোরসপ্তমীএ (য়), তে, এতে।দিগে, দিগেতে, গুলিতে, গণে, গুলির মধ্যে, গুলোতে, গুলোর মধ্যে।

তারকা চিহ্নিত বিভক্তিগুলো এবং বন্ধনীতে লিখিত শব্দ চলিত ভাষায় ব্যবহৃত হয়।

বিভক্তি চিহ্ন স্পষ্ট না হলে সেখানে শূণ্য বিভক্তি আছে মনে করা হয়।

প্রতিটি কারক চেনার জন্য প্রিয়াকে যে প্রশ্নগুলো করবেন তা নিচে পর্যায়ক্রমে লেখা হলো:
কর্তৃকারক কে বা কারা দ্বারা প্রশ্ন করে সহজেই নির্ণয় করা যায়।
কর্ম কারক কে কি বা কাকে তারা প্রশ্ন করে সহজেই নির্ণয় করা।
করণ কারক কে কিভাবে কেন কিসের দ্বারা প্রশ্ন করে পাওয়া যায় বা সহজেই নির্ণয় করা যায়।
সম্প্রদান কারক পাওয়া যায় কি বা কাকে (স্বত্ব ত্যাগ)দ্বারা প্রশ্ন করে।
অপাদান কারক পাওয়া যায় কোথা হতে (উৎস, আরম্ভ ,স্থানান্তর, বিচ্যুতি) দ্বারা প্রশ্ন করে।
অধিকরণ কারক পাওয়া যায় কোথায় ,কখন কোন বিষয়ে দ্বারা প্রশ্ন করে। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর
0 টি ভোট
1 উত্তর
19 মে 2020 "বাংলা দ্বিতীয় পত্র" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ayman (349 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর
06 নভেম্বর 2020 "বাংলা প্রথম পত্র" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Shihab hossin (11 পয়েন্ট)
3 Online Users
0 Member 3 Guest
Today Visits : 5651
Yesterday Visits : 7651
...