in সাধারণ জিজ্ঞাসা by
বিস্তারিত বলুন

1 Answer

0 votes
by
বিজ্ঞান অর্থ হচ্ছে বিশেষ জ্ঞান। কোন বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জ্ঞান লাভের ইচ্ছা যেমন, কি, কেন, কিভাবে ইত্যাদি প্রশ্ন করে তার অনুসন্ধান পরিকল্পনা, তথ্য সংগ্রহ ইত্যাদি হচ্ছে বিজ্ঞানের জ্ঞান।

বিজ্ঞানী হয়ে কেউ জন্ম গ্রহন করেন না। কিন্তু বহু মানুষ প্রকৃতিতে নানা জিনিস বা ঘটনা দেখে তা কেন হল কিভাবে হল, নিজে পারব কিনা ইত্যাদি বুঝতে ভেবে চলেন সেই বিষয় নিয়া। এভাবে ঐ ব্যক্তি হয়ে ওঠেন বিজ্ঞানী। নিউটন যদি আপেলটি খেয়ে আবার তার নিজ কাজ অর্থাৎ কেপলারের বই নিয়া ব্যস্ত থাকতেন তাহলে তিনি অভিকর্ষ মহাকর্ষ আবিষ্কার করতে পারতেন না। এই কারন শুধু মুখস্থ পড়ে বিজ্ঞান বোঝা যায়না। বিজ্ঞান বোঝার প্রথম ধাপ হচ্ছে আপনাকে বিষয় সম্পর্কে পর্যবেক্ষন করতে হবে। ভেবে বের করার চেষ্টা করতে হবে যে কিভাবে ঘটল। আর এই কাজে দ্বিতীয় প্রধান সাহায্যকারী হচ্ছেন প্রিয় শিক্ষক। কিন্তু নানা সমস্যার কারনে অনেক সময় শিক্ষকের সাহায্য নিতে সমস্যা হতে পারে। যেমন বর্তমান ক্লাস বন্ধ থাকায় শীক্ষকের সাহায্য পাওয়া কঠিন ব্যাপার। আবার বিজ্ঞানের অনেক বিষয় শুধু লিখে বা দূর থেকে বলেও বোঝানো যায়না। বিজ্ঞান হাতে কলমে ব্যবহারিক ভাবে শেখার বিষয়।

তবুও যেহেতু সংকটের সময় এগুলো পাওয়া সম্ভব না তখন নিজেকেই বুঝে বুঝে পড়ে বের করতে হবে।

সরাসরি ক্লাস ছাড়া আপনাকে বাসায় প্রথমে বইটি ভাল করে পড়তে হবে। পড়ার সময় মনে রাখতে হবে যে, আপনি কেবল পরীক্ষার খাতায় লেখার জন্য পড়ছেন না। বোঝার জন্য পড়ছেন। তাই ধীরে ধীরে প্রতিটি লাইনের অর্থ বুঝে বার বার পড়ার কোন বিকল্প নাই। এক্ষেত্রে একটি দিকে একটু মনযোগ দিতেই হবে তা হচ্ছে, বৈজ্ঞানিক শব্দ গুলো। প্রতিটি শব্দের অর্থ আগে জানতে হবে। যেমন আপনি পড়লেন মাধ্যম ছাড়াই তরঙ্গ চলতে পারে। তাহলে আগে মাধ্যম কি তা বুঝতে হবে। তারপর তরঙ্গ কি তাও বুঝতে হবে তবেই আপনি বুঝবেন কেন তরঙ্গ মাধ্যম ছাড়াই চলতে পারে।

সরাসরি ক্লাস ছাড়া অনলাইন ব্যাখ্যা, টিউটোরিয়াল চিত্র ইত্যাদি আপনাকে জোগাড় করতে হবে নেট থেকে। এগুলো পড়তে হবে। বিভিন্ন প্রশ্নোত্তর সাইট যেমন এই অন্বেষাতে প্রশ্ন করে সুন্দর ব্যাখ্যা পেতে পারেন। এছাড়া বর্তমানে টেলিশীক্ষন বা অনলাইনের মাধ্যমে লাইভ ক্লাস করা যায়। সম্ভব হলে এটি করে শেখা যেতে পারে।

মনে রাখবেন যে, শিক্ষক বা অনলাইন সবই আপনাকে সাহায্য করবে মাত্র। শিখে নিতে হবে আপনাকে। তাই বিজ্ঞান শেখার প্রথম শর্ত হচ্ছে লজিক্যাল জ্ঞান। অর্থাৎ আপনাকে লজিক বুঝতে হবে। যদি আপনি লজিক প্রিয় হোন তবেই বিজ্ঞানের ব্যাখ্যা গুলো আপনাকে পড়তে ভাল লাগবে। কোন লাইন বুঝতে বা গবেষনা করতে ভাল লাগবে। এর ফলেই আপনি নিজেই বুঝে যাবেন বিজ্ঞানের রহস্য।

তাই পড়ুন বুঝে, ভাবুন যে, এটি কেন হইল? দেখুন যে, যদি এইটা এই রকম হয় তাহলে একটু পালটে দিলে কেমন হবে। আর হ্যা সজ্ঞাগুলো সব সময় মুখস্থ রাখতে চেষ্টা করবেন কারন এটি আপনাকে লজিকের বিভিন্ন শর্তগুলো মনে করিয়ে দেবে। যেগুলো মাথায় রেখেই বিজ্ঞানের সমস্যা সমাধানে এগুতে পারবেন। যেমন ধরুন কাদায় নামলে জুতা খুলতে হবে। এই কথাটি যদি মনে না রাখেন তাহলে নদী পার হবার সময় ভেবেই কুল পাবেন না যে জুতায় কাদা লাগল কিভাবে?
1 জন সক্রিয় সদস্য
0 জন নিবন্ধিত সদস্য 1 জন অতিথি
আজকে পরিদর্শন : 5406
...